171904

‘আবরারের ভাইকে মারধর ও নারীর শ্লীলতাহানী জাতিকে ভিন্ন বার্তা দিচ্ছে’

আওয়ার ইসলাম: ‘আজ আবরার ফাহাদ-এর ভাই ফাইয়াজের ফেইসবুক পোস্টের মাধ্যমে আমরা জানতে পেরেছি যে, তাদের বাড়ীতে বুয়েট-এর উপাচার্য সাইফুল ইসলাম গিয়েছেন। গ্রামবাসী উপাচার্যের আগমনের বিষয়টি নৈতিকভাবে মেনে নিতে না পারায় পরিবেশ কিছুটা অস্থিতীশীল হয়। আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের নামে আবরার ফাহাদের ভাই ফাইয়াজকে মারধর করে এবং তার ভাবির শ্লীলতাহানী ঘটায়।’

বুধবার সন্ধা ৭টায় ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন-এর কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি এম. হাছিবুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে কেন্দ্রীয় কমিটির জরুরী বৈঠকে সভাপতির বক্তব্যে উপরোক্ত ঘটনা দেশবাসীকে ভিন্ন বার্তা দিচ্ছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

তিনি আরো বলেন, আবরার হত্যাকান্ড ছাত্রলীগের খুনী ও সন্ত্রাসী কার্যক্রমের প্রথম ঘটনা নয়। ইতোপূর্বে ছাত্রলীগ এ ধরণের আরো নৃশংস ও পৈশাচিক ঘটনা ঘটিয়েছে, যা জাতির সামনে পরিষ্কার। তিনি ছাত্রলীগের প্রতি ছাত্র রাজনীতির নামে ফ্যাসিবাদী ও সন্ত্রাসী রাজনীতি বন্ধের আহবান জানান।

জরুরী বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন আবরার ফাহাদ হত্যাকারী খুনীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে দেশব্যাপী কর্মসূচি ঘোষণা করে।

কর্মসূচিসমূহ-

ক.  ১০ অক্টোবর বৃহস্পতিবার দেশব্যাপী সকল জেলা ও সরকারী কলেজে বিক্ষোভ মিছিল।

খ. আগামী ১১ অক্টোবর শুক্রবার আবরার ফাহাদের রূহের মাগফিরাত কামনায় সকল জেলা-মহানগরে দোয়া মাহফিল।

গ. আগামী ১৩ অক্টোবর রবিবার দেশের সকল থানায় একযোগে বিক্ষোভ মিছিল।

জরুরী বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম আব্দুজ্জাহের আরেফী, প্রশিক্ষণ সম্পাদক শেখ মুহাম্মাদ আল-আমিন, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় সম্পাদক শরিফুল ইসলাম রিয়াদ, প্রচার ও যোগাযোগ সম্পাদক কে.এম.শরীয়াতুল্লাহ, প্রকাশনা সম্পাদক ইউসুফ আহমাদ মানসুর, কলেজ সম্পাদক এম.এম. শোয়াইব, প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় সম্পাদক মাহমুদুল হাসান, সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক নূরুল বশর আজিজী।

আরএম/

 

ad

পাঠকের মতামত

Comments are closed.