177105

কাবা’র তাওয়াফে কাঠের খাটিয়া থেকে বৈদ্যুতিক গাড়ি

আওয়ার ইসলাম: সময়ের সাথে সাথে আল্লাহর মেহমানদের যাত্রা সহজ করতে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে সৌদি আরব। আল্লাহর মেহমানদের জন্য সৌদি সরকার দিন দিন নতুন নতুন সংযোজন আনছেন। এরই মধ্যে তাওয়াফের জন্য বৈদ্যুাতিক গাড়ি নামিয়েছেন তারা। অথচ একসময় বৃদ্ধ হাজিদেরকে কাঠের খাটিয়ায় চড়িয়ে তাওয়াফ করানো হতো।

কাঠের খাটিয়া থেকে আজ তাওয়াফে কাবায় ব্যবহার হচ্ছে অত্যাধুনিক বৈদ্যুতিক গাড়ি।

আল-আরাবিয়ার প্রতিবেদনে আরো জানা যায়,  কাবাঘরের হজ ওমরা পালনকারী বৃদ্ধ-বৃদ্ধা বয়স্কদের সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করা হচ্ছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রাচীনকালে কাবার তাওয়াফের সময় আল-শবরিয়াহ ব্যবহার করা হতো, এটি একটি কাঠের পালকি। প্রতিবন্ধী ও বয়স্ক হজ ওমরা পালনকারীরা সেটাতে বসলে দুইজন সেটা বহন করে তাওয়াফ করাতো।

জানা যায়, প্রাচীন কালের আল-শবরিয়াহ বা কাঠের খাটিয়া মৃতব্যাক্তিদের বহনের খাটের মত দেখতে। বিশেষত যারা অক্ষম ও প্রতিবন্ধী তাদের জন্য এটি ব্যবহার করা হতো।

আল-শবরিয়াকে সুন্দর ডিজাইনে এবং বিভিন্ন রঙে ডিজাইন করা হতো। এটার  উপর রেশম ও সুতির কাপড় জড়ানো থাকতো।

সৌদির ঐতিহাসিক ইসমাইল আল বারাকাতি বলেন, পুরানো দিনগুলিতে তাওয়াফ চলাকালীন তিনি প্রায়ই খট খট শব্দ শুনতেন। সে শব্দ ছিলো কাঠের তৈরি আল-শবরিয়ার। এ শব্দ করে পথচারীদের জায়গা করে দেয়ার আহ্বান জানানো হতো।

বর্তমান সরকার মাজুর অসুস্থ ব্যাক্তিদের তাওয়াফের জন্য প্রায় ১০ হাজার বৈদ্যুতিক গাড়ি ১৫টি স্পটে ব্যবস্থা করে রেখেছেন।

যারা বৃদ্ধ বা অসুস্থ, প্রতিবন্ধী তারা সেগুলো ব্যবহার করে কাবা শরিফ তাওয়াফ করেন।

-এটি

ad

পাঠকের মতামত

Comments are closed.