177819

প্রকাশ পেল সাইমুম সাদীর ‘এশিয়ায় কালো থাবা’

শাহনুর শাহীন ।।

জনপ্রিয় রম্য লেখক বলা যায়। চলায়, বলায়, উপস্থাপনায় একটু অনন্যই। চায়ের টেবিলে বসে, রিক্সায় চড়ে কিংবা হাঁটতে হাঁটতে আড্ডার ফাঁকে নির্মাণ করে ফেলেন চমৎকার সব গল্প। কথার ,মানুষ, গল্পের মানুষ সাইমুম সাদী ওরফে রুহুল আমিন সাদী। দীর্ঘ বিরতির পর পাঠকের জন্য বাজারে এনেছেন থ্রিলার উপন্যাস ‘এশিয়ায় কালো থাবা’।

ধারাবাহিক থ্রিলার উপন্যাস আবাবিল সিরিজের নতুন শুরুর প্রথম বই এটি। বেশ কয়েক বছর আগে ‘পেরিয়ে রাতের ছায়া’ শিরোনামে একটা বই প্রকাশ হয়েছিলো। জিরো ওয়ান জিরো নামে ধারাবাহিক থ্রিলারও লিখেছিলেন ম্যাগাজিনের পাতায়। কিন্তু পুরনো লেখা খুঁজে না পাওয়ায় নতুন করেই শুরু করতে হয়েছে আবাবিল সিরিজ।’ জানিয়েছেন লেখক সাইমুম সাদী নিজেই।

গত ৬ ডিসেম্বর বিকেলে বাইতুল মোকাররমের দক্ষিণ গেট চত্তরে ইসলামিক ফাউন্ডেশন কর্তৃক আয়োজিত চলমান ইসলামী বইমেলায় ‘এশিয়ায় কালো থাবা’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচণ হয়। বইটি প্রকাশ করেছে প্রতিশ্রুতিশীল প্রকাশনা সংস্থা গার্ডিয়ান পাবলিকেশন্স।

একটি উদ্দেশ্যকে সামনে রেখেই এই সিরিজের আত্মপ্রকাশ বলে জানিয়েছেন লেখক সাইমুম সাদী। তিনি বলেন, শুধুমাত্র আনন্দ দেয়া নয় এর মধ্য দিয়ে তরুণদেরকে অন্যায় ও অসত্যের বিরুদ্ধে রুখে দাড়ানোর প্রত্যয় জাগিয়ে তোলা, প্রযুক্তির সাথে পরিচয় করানো, অশ্লীলতার সয়লাব থেকে সৃজনশীল কাজের প্রতি উদ্বুদ্ধ করাই উদ্দেশ্য। আবাবিল সিরিজে থ্রিলের পাশাপাশি ইসলামী জীবন ব্যাবস্থার সৌন্দর্য প্রকাশ এবং ইসলামী দাওয়াতি কাজের প্রচেষ্টা চালানো হয়েছে।

তিনি বলেন, তরুণদেরকে তাদের মনোজগতে পরিবর্তন আনার জন্য তাদের পছন্দের জায়গাটায় কথা বলতে হবে। আর সেই ক্ষেত্রে উপন্যাস হচ্ছে একটা গুরুত্বপূর্ণ স্থান। রহস্যোপন্যাসের মধ্য দিয়ে সেই চেষ্টাই করা হয়েছে।

গার্ডিয়ান পাবলিকেশন্স এর স্বত্তাধীকারী নূর মুহাম্মদ আবু তাহের বলেন, থ্রিলার উপন্যাসের জগতে সাইমুম সিরিজ ও মাসুদ রানা’র পর নতুন করে আরেকটি সিরিজ বা চরিত্র দাঁড় করানো অনেক অনেক কঠিন কাজ ছিলো। সেই কঠিন কাজটিই করার সাহস দেখিয়েছেন লেখক সাইমুম সাদী। লেখক তার নিজস্বতা দিয়েই নতুনত্ব তৈরিতে সক্ষম। আমরা আশা করি ‘আবাবিল সিরিজ’ ব্যাপক পাঠকপ্রিয়তা পাবে।

এই সিরিজের পরবর্তী বই ‘বেনিন সীমান্তের ওপারে’ খুব শীঘ্রই গার্ডিয়ান পাবলিকেশন্স থেকে প্রকাশ হবে বলে জানিয়েছেন প্রকাশক নূর মুহাম্মদ আবু তাহের।

আরএম/

ad

পাঠকের মতামত

Comments are closed.