95820

৬৪ জেলায় মাদক চালানে তৎপর ৩৬০০ শীর্ষ কারবারী

সাদাত সাদি:  ৩৬০০ শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী নিয়ন্ত্রণ করছেন দেশের রাজধানীসহ ৬৪ জেলার মাদককারবার ।

নিজস্ব তথ্য প্রমাণ-গোয়েন্দা সংস্থা-ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যদের মতামত-স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতায় অত্যন্ত নিখুঁৎভাবে মাদক কারবারীদের এই তালিকা করা হয়েছে।

সমাজ বিধ্বংসী এ সব মাদক ব্যবসায়ীকে ধরতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী দিনরাত কাজ করে যাচ্ছে।
অভিযান চলাকালে হামলা পালটা হামলায় প্রায়ই মাদক ব্যবসায়ীরা নিহত হচ্ছে।

গতকাল পর্যন্ত র্যা ব-পুলিশের ‍বিভিন্ন হামলায় নিহত হয়েছেন ১৩৪ শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী। এর মধ্যে র্যা ব অভিযানে ৩৩ জন ও পুলিশ অভিযানে ১০১ জন নিহত হয়েছেন।

গত ৪ মে থেকে র্যা ব মাদক নির্মূল অভিযান শুরু করেছে। অন্যদিকে পুলিশ অভিযান শুরু হয়েছে পয়লা রজমান থেকে।

৩৬০০ শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীর ৫০ জন ঢাকা নিয়ন্ত্রণ করেন। এদের একজন ইতোমধ্যে ‍নিহত হয়েছেন। রাজধানীর এই শীর্ষ ৫০ জনের অধীনে রয়েছেন ১৩৮৪ জন মাদক ব্যবসায়ী।

এদের তালিকা মহানগর পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থার কাছে রয়েছে। সেই তালিকা ধরেই রাজধানীতে চলছে মাদকবিরোধী অভিযা।

টেকনাফ থেকে ইয়াবার বড় বড় চালান আসে ঢাকার এই শীর্ষ ৫০ ব্যবসায়ীর কাছে । পরে তাদের মাধ্যমে পৌঁছে যায় দেশের বিভিন্ন স্থানে । তারা চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করেন।
এ দিকে র‌্যাব এ পর্যন্ত অভিযান পরিচালনা করেছে ৮৩৮টি। এতে সেবনকারীসহ ১০২৬ ব্যবসায়ী গ্রেফতার হয়েছেন।

র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ জানান, অত্যন্ত নিখুঁৎভাবে সারাদেশের মাদক ব্যবসায়ীদের তালিকা করা হয়েছে। নিজস্ব ও গোয়েন্দা সংস্থার তথ্য প্রমাণের পাশাপাশি স্থানীয় জনসাধারণের সহযোগিতার ভিত্তিতে ৩৬০০ শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীর তালিকা ধরে অভিযান চালাচ্ছে র‌্যাব। অভিযান যেনো কোনো ধরণের প্রশ্নবিদ্ধ না-হয়, সে ব্যাপারে সতর্ক রয়েছে র্যাশব।

এ দিকে অভিযানকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর একশ্রেণির কর্মকর্তা তৎপর। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর যেসব অসাধু কর্মকর্তা মাদক ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ঘুষ খায়, অভিযান ব্যর্থ করার ষড়যন্ত্রে তারা লিপ্ত।

অন্যদিকে জামায়াত-শিবির ও বিএনপিঘরোয়া কর্মকর্তারা এই অভিযানকে প্রশ্নবিদ্ধ করে সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে তৎপর রয়েছে, কোনো কোনো সংস্থার পক্ষ থেকে এমন মন্তব্য করা হয়েছে।

এ সংস্থার পক্ষ থেকে ঘুষখোর কর্মকর্তা ও সরকারবিরোধী কর্মকর্তাদের চিহ্নিত করতে ইতোমধ্যে কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। দেশব্যাপী এই অভিযান শুরু হতে-না-হতেই রাজধানীসহ দেশের জেলা-উপজেলা, এমনকি ইউনিয়ন পর্যায়েও ফাঁস হয়ে গেছে মাদক কারবারীদের নামের তালিকা।

মাদক কারবারীর নামের তালিকা ফাঁস করে দিয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর মাদক কানেকশনের সঙ্গে সম্পৃক্ত একশ্রেণির দুর্নীতিবাজ, অসত্ কর্মকর্তা। এ কারণে মাদকবিরোধী অভিযান চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হচ্ছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে।

আরো পড়ুন- মাদক বিরোধী অভিযানে আরো ২ লাশ

ad

পাঠকের মতামত

One response to “ঢাবিতে শিক্ষার্থীদের দেয়া তালা ভাঙলো ছাত্রলীগ”

  1. When I initially commented I clicked the “Notify me when new comments are added” checkbox and now each time a comment is added I get four
    emails with the same comment. Is there any way you can remove people from
    that service? Bless you!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *