145501

প্রথম তিন শ্রেণি থেকে পরীক্ষা তুলে দেয়ার নির্দেশ প্রধামন্ত্রীর

আওয়ার ইসলাম: আগামী শিক্ষাবর্ষে প্রাথমিক শিক্ষাব্যবস্থায় পরিবর্তন আসছে। প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণীতে কোনো ধরনের পরীক্ষা থাকছে না। এ তিন শ্রেণি থেকে পরীক্ষা তুলে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রথম, ‍দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের স্কুলে উপস্থিতি এবং স্কুল থেকে দেয়া ডায়েরির রিপোর্টই মূল্যায়নের ভিত্তি হিসেবে বিবেচনা করা হতে পারে। পরীক্ষার চাপ যেন শিশুর স্বাভাবিক বিকাশে বাধা হতে না পারে, সেজন্যই এ পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব আকরাম আল হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণী থেকে তৃতীয় শ্রেণীর সব পরীক্ষা তুলে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শিশুর ওপর থেকে পরীক্ষার চাপ কমাতে ফিনল্যান্ডসহ উন্নত বিশ্বের আদলে শিক্ষাব্যবস্থা সাজানোর নির্দেশ দিয়েছেন। আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে এ নির্দেশনা কার্যকর করার চিন্তা করা হচ্ছে।

প্রাথমিকের মেয়াদ এক বছর থেকে বাড়িয়ে দুই বছর করারও চিন্তাভাবনা চলছে। কিন্ডারগার্টেনের দৌরাত্ম্য কমিয়ে ৪ বছরের বেশি বয়সী শিশুকে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়মুখী করতেই এ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে।

গত ১৩ মার্চ প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহ-২০১৯ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিশুকে পড়াশোনার জন্য অতিরিক্ত চাপ না দিতে অভিভাবক, শিক্ষকসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রাথমিক শিক্ষার ক্ষেত্রে আমি বলব, কোনোমতেই যেন কোমলমতি শিশুকে অতিরিক্ত চাপ না দেয়া হয়। তা হলেই দেখবেন তারা ভেতরে একটা আলাদা শক্তি পাবে এবং তাদের শিক্ষার ভিতটা তৈরি হবে শক্তভাবে।

কোমলমতি বয়সে লেখাপড়ার কঠোর শৃঙ্খলে আবদ্ধ করাকে তিনি ‘একধরনের মানসিক অত্যাচার’ বলে অভিহিত করে বলেন, শিশুরা প্রথমে স্কুলে যাবে এবং হাসি-খেলার মধ্য দিয়ে লেখাপড়া করবে।

শিশুর পাঠদান পদ্ধতি সম্পর্কে শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের দেশে অনেক ছোটবেলা থেকেই বাচ্চারা স্কুলে যায় অথচ পৃথিবীর অনেক দেশেই ৭ বছরের আগে শিশুকে স্কুলে পাঠায় না। সে দিকে লক্ষ রেখে আমাদের শিশুদের হেসেখেলে সুন্দর পরিবেশে পড়াশোনা ব্যবস্থাটা করা উচিত।

শিশুদেরকে অনবরত পড়, পড়, পড় বলাটা বা ধমক দেয়া একপ্রকার চাপ সৃষ্টি করা। এরকম চাপ দিলে শিক্ষার ওপর তাদের আগ্রহ কমে যাবে, ভীত সৃষ্টি হবে । শিক্ষার প্রতি শিশুদের সেই ভীতি যেন সৃষ্টি না হয়, সেজন্য আমি আমাদের শিক্ষক এবং অভিভাবকদের অনুরোধ করব।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, অনেক সময় আমরা দেখি প্রতিযোগিতাটা শিশুর মধ্যে না হলেও বাবা-মায়ের মধ্যে একটু বেশি হয়ে যায়। আমি এটাকে অসুস্থ প্রতিযোগিতা বলে মনে করি।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, ওই অনুষ্ঠানেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণশিক্ষা সচিবকে আগামী বছর থেকে প্রাথমিক স্তরের প্রথম থেকে তৃতীয় শ্রেণীর সব পরীক্ষা তুলে দেয়ার নির্দেশ দেন।

আরএম/

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *