145811

জার্মানের বাভেরিয়ায় একটি আদালতে কর্মীদের হিজাবে নিষেধাজ্ঞা

আওয়ার ইসলাম: আদালতে বিচারক ও আইনজীবীরা হিজাব পরতে পারবে না বলে রায় দিয়েছে জার্মানির বাভেরিয়া রাজ্যের একটি সাংবিধানিক আদালত৷বাভেরিয়া রাজ্য কর্তৃপক্ষের হিজাব বিষয়ে নিষাধাজ্ঞা আরোপের বিষয়টিকে বৈধতা দিয়ে এ রায় দেয় আদালত৷ খবর ডয়চে ভেলের।

বাভেরিয়া রাজ্য কর্তৃপক্ষের হিজাব বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রতিবাদে স্থানীয় একটি মুসলিম সংগঠনের করা আবেদনের প্রক্ষিতে আদালত জানায়, ধর্মীয় বা অন্য যে কোনো মতাদর্শ বিষয়ে নিরেপক্ষ থাকার বাধ্যবাধকতা রয়েছে বিচার বিভাগের৷

ক্রুশ বিতর্ক

রাজ্যের নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে আদালতে আবেদন করা মুসলিম সংগঠনটি দাবি করেছিল যে, বাভেরিয়া কর্তৃপক্ষের আরোপিত এ নিষেধাজ্ঞা দেশের ধর্ম বিষয়ক আইনের লঙ্ঘন, কেননা বাভেরিয়ার আদালতে খিষ্টানদের ধর্মীয় প্রতীক ক্রুশ ঝোলানো হয়৷মুসলিম সংগঠনটির এ যুক্তি প্রত্যাখ্যান করে আদালত জানায়, ক্রুশ ঝোলানোর বিষয়টি তাদের যুক্তির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়৷

বরং এটি আদালতের প্রশাসনিক কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত৷আদালত জানায় , হিজাব পরার বিষয়ে এ নিষেধাজ্ঞা কোনোভাবেই লিঙ্গবৈষম্য হিসেবে চিহ্নিত করা যাবে না৷ কারণ আদালত পুরুষদের বেলায়ও সব ধরনের ধর্মীয় পোশাক পরে আদালতের কার্যক্রমে অংশগ্রহণ নিষিদ্ধ করে৷

গত কয়েক বছর ধরেই জার্মানিতে নারীদের, বিশেষ করে সরকারি চাকরিতে নিয়োজিত নারীদের হিজাব পরার বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক চলছে৷ সর্বশেষ জার্মান সংসদের সিডিইউ-সিএসইউ-এর ডেপুটি চেয়ারম্যান কার্স্টেন লিনেমান দেশটিতে ১৪ বছর বয়স পর্যন্ত মেয়েদের হিজাব পরার বিষয়ে নিষেধাজ্ঞার কথা বলেন৷

কার্স্টেন লিনেমান সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ছেলেদের মতো মেয়েদেরও মুক্তভাবে বেড়ে উঠার স্বাধীনতা থাকা উচিত৷

বিতর্কিত পরিকল্পনা

গত বছর জার্মানির সবচাইতে জনবহুল রাজ্য নর্থ রাইন-ওয়েস্টফেলিয়া কর্তৃপক্ষ ২০১৯ সালের শেষ নাগাদ ১৪ বছর বয়স পর্যন্ত মেয়েদের স্কুলে হিজাব পরার বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপের পরিকল্পনা করে৷

সমালোচনাকারীরা বলছেন, নারী নির্যাতনের একটি প্রতীক হলো হিজাব৷এর বিপরীতে আরেক পক্ষ যুক্তি দেখাচ্ছে যে, হিজাব পরিধানের বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপ ব্যক্তিস্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ৷ আবার কেউ কেউ বলছেন, পোশাক নিয়ে এ ধরনের সমালোচনা ইসলামবিরোধী মনোভাবের প্রকাশ৷

আইএ

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *