150009

মোদীকে মমতার আক্রমণ, ভোট নয় পাবে কাঁচাগোল্লা

আওয়ার ইসলাম: আজ ভারতীয় সময় সকাল ৮ টায় তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জনসভা ছিলো নদিয়া জেলার বগুলায়। জনসভায় উপস্থিত হয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বুনিয়াদপুরের বক্তব্যের জবাব দিয়ে তৃণমূল নেত্রী বলেন,‘‘কুকুর কামড়ালে জলাতঙ্ক হয়। উনি হারাতঙ্কে ভুগছেন। আর রোজ ভুলভাল বকছেন।’

গতকাল শনিবার নরেন্দ্র মোদী মন্তব্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ব্যাপারে বলেছিলেন, ‘লোকসভা ভোটের পরে রাজ্যে মমতা আর ক্ষমতায় থাকবেন না।’ তার মন্তব্যের পাল্টা চ্যালেঞ্জ করে মমতা বলেন, ‘এটা বাংলার নির্বাচন নয়। দিল্লির নির্বাচন। নিজে কী করেছ, তা বলছ না। পাঁচ বছর ঘুরে বেড়িয়েছ। আগে পাঁচ বছরের হিসেব দাও। তার পর ভোট দেব।’

রাজ্য নিয়ে তাঁর আত্মবিশ্বাসী দাবি, ‘এখানে এলে মোদীকে সরপুরিয়া দেব। কাঁচাগোল্লা দেব। মিহিদানা দেব। আমরা অতিথি এলে খাওয়াই। কিন্তু ভোট দেব না। আপনারাও ভোট দেবেন না।’

এ বারের নির্বাচনী প্রচারের শুরু থেকেই নরেন্দ্র মোদীকে ‘মেয়াদ ফুরনো প্রধানমন্ত্রী’ হিসেবে উল্লেখ করছেন তৃণমূল নেত্রী।

এ দিনও তিনি বলেন, ‘উত্তরপ্রদেশ, দিল্লি, পাঞ্জাব, রাজস্থান, গুজরাত, ওড়িশা, উত্তর-পূর্বে বিজেপি হারবে। ত্রিপুরার একটি আসন না হয় জিতল। অন্ধ্রপ্রদেশে শূন্য, তামিলনাড়ুতে গোল্লা, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থানেও গোল্লা পাবে। উত্তরপ্রদেশে এ বার ১৩টি আসনও পাবে না।’

মমতার কথায়, ‘আরএসএস মোদীকে বলেছে, সব জায়গায় হারবে। বাংলায় গিয়ে ঘুরে বেড়াও। মমতা তোমার বিরুদ্ধে কথা বলছে। ওঁর গলা বন্ধ করতে হবে।’

রাজ্যে তৃণমূল সরকারের কাজের বিবরণ দিয়ে মোদীর কাছে পাঁচ বছরের জবাবদিহিতা চান মমতা। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘২ কোটি ছেলেমেয়ের চাকরি চলে গেছে। মোদীবাবুর জবাব চাই। সবার পকেটে ১৫ লক্ষ টাকা দেবেন বলেছিলেন। কালো ধন নিয়ে এসে। দিয়েছেন কি?’

এ বারের নির্বাচনী লড়াইয়ে নিজের মেজাজ বুঝিয়ে তৃণমূল নেত্রী বলেন, ‘‘বাংলার মাটি রবীন্দ্র-নজরুলের মাটি। এ মাটি দাঙ্গা সহ্য করে না। এখানে এক ইঞ্চি জমিও ছাড়ব না।’

সূত্র: আনন্দবাজার

-এমডব্লিউ

ad

পাঠকের মতামত

One response to “ভারতে মুসলিম রাজনৈতিক নির্মূলকরণ আরো বাড়বে: ওয়াইসি”

  1. Sweet blog! I found it while browsing on Yahoo News.
    Do you have any suggestions on how to get listed in Yahoo News?
    I’ve been trying for a while but I never seem to get there!
    Thank you

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *