155268

আওয়ার ইসলামের কোর্স: আমার অনুভূতি

সুলতান মাহমুদ বিন সিরাজ ।

কোর্স প্রশিক্ষণার্থী, তরুণ আলেম ও মাদরাসা শিক্ষক।

লেখালেখি। আমার স্বপ্ন। আমার ভালো লাগা। ছাত্র জীবনের সূচনা থেকেই লেখালেখির প্রতি আমার আগ্রহ। আমার হাতেখড়ি। মনে বড় আশা। একদিন বড় লেখক হবো। এই মানসে লিখে যাই অনবরত। অপরিপক্ব হাতে লিখি রোজনামচা। ছড়া, গল্প ও গদ্য। চেষ্টা করি ভালো লেখার। এভাবেই চলছিলো দিন।

একদিন জানতে পারি আওয়ার ইসলাম একটি কোর্স এর আয়োজন করেছে। আওয়ার ইসলাম টোয়েন্টিফোর ডটকম। দেশের অন্যতম ও জনপ্রিয় একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। কওমি অঙ্গনের আস্থার ঠিকানা। ভালোবাসা। ‘সত্যের পথে তথ্যের সাথে’ শ্লোগানে দেশ ও জাতির স্বার্থে কাজ করছে পোর্টালটি। ইতোমধ্যে সর্বস্তরের মানুষের সমর্থনও অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এ আওয়ার ইসলাম পরিবার ৫ম বারের মতো আয়োজন করেছে ‘লেখালেখি ও সাংবাদিকতা কোর্স’। পরিচালনায় ছিলো ‘বাংলাদেশ ইসলামী লেখক ফোরাম’। সহযোগিতা করেছে অনলাইন বুকশপ ‘রকমারি ডটকম’।

আমার লেখালেখির দূর্বলতাগুলোকে কাটিয়ে ওঠতে ও লেখার হাতকে আরো পাকা করতে সেই কোর্সকে আমি অকপটে গ্রহণ করলাম। ভাবলাম, এখান থেকে ভালো কিছু অর্জন করতে পারবো। বড় বড় লেখকদের সাথে পরিচিত হবো। যে লেখকদের লেখা এতো দিন বইয়ের পাতায় পড়েছি। তাঁদের মনভরে কাছ থেকে দেখতে পারবো। অনুপ্রাণিত হবো। যেই ভাবনা সেই কাজ। আওয়ার ইসলাম পরিবারের মহব্বতে চলে এলাম কোর্সে। অপরিচিত স্থান। অচেনা সব মানুষ। একটু অন্যরকম লাগছে। তবুও হৃদয়ে প্রশান্তি। এখানে আসতে পেরেছি বলে।

মুফতি হুমায়ুন আইয়ুব। আওয়ার ইসলামের সম্পাদক। কোর্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। জানতাম বহুগুণে গুণান্বিত একজন উঁচু মাপের ব্যক্তিত্ব। কিন্তু এখানে এসে দেখলাম মানুষের চেয়ে উনার মনটা আরো বড়। কোর্সে আমাদের সর্বক্ষণ আগলে রেখেছেন। অমায়িক ব্যবহারে আমাদের মুগ্ধ করেছেন। সবার সাথে মিশেছেন। অসাধারণ একজন মানুষ তিনি। ছোটদের প্রতি তাঁর এ আচরণ  আমাদের জন্য শিক্ষণীয়। সত্যি, বড়রা এমন-ই হোন।

মোস্তফা ওয়াদুদ কাসিমী। তরুণ আলেম। মুফতি। লেখক। কোর্সের প্রশিক্ষণার্থীদের সবসময় খবর নিতেন তিনি। ছাত্রদের থাকা খাওয়া বা যে কোনো প্রয়োজনে দৌড়ে আসতেন। আমাদের প্রতি তাঁর অন্যরকম ভালবাসা ছিলো। আমাদের বলতেন কোনো কষ্ট হচ্ছে কি না?  কোর্সের কারো কষ্ট হলে সাধ্যমতে তার সহজ সমাধান করে দিতেন। তিনি তার মনকাড়া ব্যবহারে আমাদের হৃদয় জয় করতে সক্ষম হয়েছেন। আমরা আলাদা করে তাঁর কথা মনে রাখবো।

মুহতারাম মুহাম্মাদ যাইনুল আবিদীন, জহির উদ্দিন বাবর ও মুনীরুল ইসলাম। বাংলাদেশ ইসলামী লেখক ফোরামের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। সময়ের তিন জনপ্রিয় সহিত্যিক, লেখক ও কবি। আমাদের কিছু দেয়ার জন্যে চেষ্টা করেছেন। পরিশ্রম করেছেন। আমরা তাঁদের প্রতিও কৃতজ্ঞ। এর বাইরে আরো যারা আমাদের জন্যে ভালোবাসা দেখিয়েছেন। সবার প্রতি  আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও ভালোবাসা প্রকাশ করছি।

কোর্সে এসে আমরা যা পেয়েছি। তার সবচে’ বড় অর্জন আওয়ার ইসলামের ভালোবাসা। এ ভালোবাসা অটুট থাকুক চিরদিন। যুগ-যুগান্তর। আমরা যেনো হাতে হাত রেখে মাঞ্জিলে মাকসুদে পৌঁছাতে পারি। ভালো থেকো আওয়ার ইসলাম পরিবার। আলো ছড়াও বিশ্বময়।

এমডব্লিউ/

ad

পাঠকের মতামত

Comments are closed.