180213

সালতামামি ২০১৯: মধ্যপ্রাচ্যে যা কিছু আলোচিত

আবদুল্লাহ তামিম।।

মধ্যপ্রাচ্য এশিয়া ও আফ্রিকার মধ্যবর্তী অঞ্চলকেই বুঝায়। মধ্যপ্রাচ্যের ইতিহাস আদিকাল থেকেই প্রসিদ্ধ ছিল এবং এর ইতিহাস থেকেই এটি সারা বিশ্বের এক আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। ইতিহাসের আদিকাল থেকে এই অঞ্চল নানান কারণে বিখ্যাত ছিল। গেলো বছরটিতে আলোচিত ঘটনা নিয়ে প্রতিবেদন করেছে মধ্যপ্রাচ্যের নামি পত্রিকা আরব নিউজ। ফিরে দেখা মধ্যপ্রাচ্যের ২০১৯।

পোপ ফ্রান্সিসের সংযুক্ত আরব আমিরাতে ঐতিহাসিক সফর

ক্যাথলিক চার্চের প্রধান, পোপ ফ্রান্সিস গেলো বছরের ৩ ফেব্রুয়ারি মুসলিম দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতে তিন দিনের সফর করেছিলেন। এটিকে ঐতিহাসিক এ সফর বলে উল্লেখ করেছে দেশটি।

জানা যায়, তিনি আমিরাতের রাষ্ট্রপতির আমন্ত্রণে এ সফর করেছেন। আবু ধাবির বিমানবন্দর থেকে তাকে আবুধাবির ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান স্বাগত জানিয়েছিলেন।

বোহেমিয়ান রেপসোডির জন্য সেরা অভিনেতা হিসেবে অস্কার জিতেছেন রামি মালিক

‘বোহেমিয়ান রেসপোডি’ তে ফ্রেডি বুধের চরিত্রে অভিনয়ের জন্য রামি মালিক আরব বিশ্বের প্রথম অভিনেতা হিসেবে সেরা অভিনেতার অস্কার জয় করেন। তিনি আরব বিশ্বে নতুন এক ইতিহাস রচনা করেছিলেন। ৩৭ বছর বয়সী এই অভিনেতা এলিয়ট চরিত্রে অভিনয় করার জন্য সবচেয়ে বেশি পরিচিত ছিলেন।

৩০ বছর ক্ষমতায় থাকার পর ক্ষমতাচ্যুত সুদানের রাষ্ট্রপতি

গেলো বছরে আরব বিশ্বের আরো একটি ইতিহাস সংঘটিত হয়েছে সুদানে। নিপীড়ন, যুদ্ধাপরাধ এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে ৩০ বছরের স্বৈরশাসনের পরে সুদানের রাষ্ট্রপতি ওমর আল-বশিরকে ১১ এপ্রিল বরখাস্ত করা হয়েছিল।

তিনি ১৯৮৯ সালে একটি সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতায় এসেছিলেন। পরবর্তীকালে আন্তর্জাতিক ফৌজদারি আদালত তাকে গণহত্যার অভিযোগে অভিযুক্ত করে। জ্বালানী ও খাদ্যের দাম বৃদ্ধির ঘোষণার পরে দেশব্যাপী বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়লে ডিসেম্বর ২০১৮ সালে রাজনৈতিক অস্থিরতা দেখা দেয় সুদানে। অস্থিরতা ও আন্দোলনে অবশেষে সামরিক হস্তক্ষেপে ২০১৯ সালে তাকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়।

সংযুক্ত আরব আমিরাত ও সৌদিতে নতুন ভিসা নীতি জারি

সংযুক্ত আরব আমিরাত গেলো বছরে আলোচনায় এসেছে পাঁচটি বিভাগ থেকে প্রবাসীদের জন্য দীর্ঘমেয়াদী ভিসা (পাঁচ থেকে দশ বছর) প্রদানের জন্য। তারা একটি নতুন পরিষেবা চালু করার ঘোষণা দিয়েছিলো। বিনিয়োগকারী, উদ্যোক্তা, উদ্ভাবক, বিশেষ দক্ষ এবং দক্ষ শিক্ষার্থী। ভিসা সার্ভিসের নিয়ন্ত্রক কাঠামোটি প্রথম মার্চ মাসে সংযুক্ত আরব আমিরাতের মন্ত্রিসভা কর্তৃক অনুমোদিত হয়েছিল।

১ মে কার্যকর হওয়ার পর, সৌদি আরব স্থায়ী প্রিমিয়াম রেসিডেন্সি প্রকল্পের ঘোষণা করেন। সৌদি পৃষ্ঠপোষক ছাড়াই ব্যবসায়ের জন্য স্পনসর ভিসা কেনার অনুমতি দিয়েছিল। সৌদি আরও ঘোষণা করেছে, ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে বিশ্বব্যাপী ৪৯ টি দেশের দর্শকদের জন্য প্রথমবারের মতো ট্যুরিস্ট ভিসা দেওয়া হবে।

সৌদিতে অভিভাবকত্ব আইনে শিথিলতা। নারীদের পুরুষ অভিভাবক ছাড়া ভ্রমণে অনুমতি

১ আগস্ট ঘোষণা করা হয়েছিল। বাদশাহ সালমান স্বাক্ষরিত একটি ডিক্রি সৌদি আরবের নারীদের পাসপোর্টের জন্য আবেদন করার এবং স্বাধীনভাবে ভ্রমণ করার অধিকার দেয়া হয়েছিলো।

ডিক্রি অনুসারে, প্রত্যেক সৌদি নাগরিক, লিঙ্গ নির্বিশেষে, একজন পাসপোর্ট পেতে পারেন, কেবল নাবালিকাদের অভিভাবকের অনুমোদনের সীমাবদ্ধতার বিষয়ে বলা হয়েছে নীতিতে। ডিক্রিটি লিঙ্গ-নিরপেক্ষ পদ্ধতিতে লিখিত হয়েছিল এবং নারীদের নির্দিষ্ট কোনও বিধিনিষেধের কথা উল্লেখ করেনি। এ পদক্ষেপটি ২০১৩ সালে শূরা কাউন্সিলে নারীদের অন্তর্ভুক্তির মধ্য দিয়ে শুরু হয়। ২০১৩ সালে নারীদের ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদান করা হয়। এগুলো ছিলো সৌদির আলোচিত কিছু নীতি।

২০১৯ সালের আলোচিত সৌদি আরবের আরমকো তেলক্ষেত্রে আগুন

সৌদি আরবের রাষ্ট্রায়ত্ত কোম্পানি আরামকোর দুইটি তেলক্ষেত্রে বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে সেপ্টেম্বর মাসে। আবকাইক ও খুরাইস প্রদেশে অবস্থিত তেলক্ষেত্র দুইটিতে আগুন ভয়াবহ আগুনের ঘটনা ঘটে।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্রের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, ড্রোন হামলায় এই আগুনের ঘটনা ঘটে।

আরামকো বিশ্বের সর্ববৃহৎ তেল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান। প্রতিদিন এ প্রতিষ্ঠান ৭০ লাখ ব্যারেল তেল উৎপাদন করে থাকে। বেশিরভাগ সৌদি তেল আরামকোতেই প্রক্রিয়াজাত করা হয়।

লেবাননে বিক্ষোভের মুখে প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরির পদত্যাগ

দেশজুড়ে দুই সপ্তাহের বিক্ষোভের মধ্যে লেবাননের প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরি ২৯ অক্টোবর তার সরকারের পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছিলেন। এর আগেও তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দুবার পদত্যাগ করেছিলেন। বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরির পদত্যাগের ঘোষণায় বিক্ষোভকারীরা উল্লাস প্রকাশ করেন। দুর্নীতি ও গোষ্ঠীতন্ত্রের বিরুদ্ধে ১৭ অক্টোবর থেকে দেশের মানুষ বিক্ষোভ করছিলেন।

এতে সাদ হারিরির শীর্ষ মিত্রদের অন্যতম ফ্রান্স তার পদত্যাগের ঘোষণায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন।

ইয়েমেন সরকার ও বিচ্ছিন্নতাবাদীদের চুক্তি সই

ইয়েমেন যুদ্ধের অবসানের লক্ষ্যে দেশটির ‘আন্তর্জাতিক স্বীকৃত সরকার’ ও বিচ্ছিন্নতাবাদীরা একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে ৬নভেম্বর। সৌদি যুবরাজ সালমানের মধ্যস্থতায় সই হওয়া চুক্তিটির নাম দেয়া হয়েছে ‘রিয়াদ চুক্তি’। এই যুদ্ধে ইয়েমেনের হাজার হাজার মানুষ প্রাণহানি হয়েছে, দুর্ভিক্ষের কবলে পড়েছে গোটা দেশ।

সৌদি আরবের রাষ্টীয় টেলিভিশনে বলা হয়েছে, যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটির দক্ষিণ অঞ্চলের বিচ্ছিন্নতাবাদী ও সরকারের মধ্যে ‘রিয়াদ চুক্তিতে’ সম্মত হয়েছে। যুবরাজ সালমানের মধ্যস্থতায় রাজনৈতিক সমাধান হিসেবে উভয় পক্ষের সম্পাদিত এই চুক্তির ফলে দেশটির দীর্ঘদিনের রক্তাক্ত যুদ্ধের অবসান ঘটবে।

সৌদির ওই রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিভিশনে চুক্তি স্বাক্ষরের অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার করা হলেও চুক্তির বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি। কিন্তু সূত্র বলছে, চুক্তির ফলে এখন বর্তমান সরকারে রদবদল করে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে বসানো হবে।

সূত্রের বরাত দিয়ে চুক্তির বিষয়ে আলজাজিরা জানতে পেরেছে যে, বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদের ভাগাভাগি হলেও দেশটির সশস্ত্র বাহিনীর নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতা থাকবে সরকারের হাতে। ইয়েমেনের দক্ষিণ অংশের নিয়ন্ত্রণ নিতে আমিরাক সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদীরা গত আগস্টে বন্দরনগরী আডেন সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে নেয়।

সিসির পদত্যাগ দাবিতে গর্জে উঠা মিসর

মিসরের স্বৈরশাসক প্রেসিডেন্ট আবদুল ফাত্তাহ আল-সিসির পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলন শুরু হয় ২০ সেপ্টেম্বরের দিকে। এতে প্রায় ১০ হাজার জনগণকে গ্রেফতার করেছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা।

এ সহিংসতায় নিহত হয়েছে প্রায় ৪ হাজার মানুষ। সিসির শাসনে অতিষ্ঠ হয়ে দেশটির হাজার হাজার মানুষ বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভ শুরু করে।

আবদুল ফাত্তাহ আল সিসি ২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসার পরই সেখানে খরচ কমানোর অর্থনৈতিক নীতি অনুসরণ করা হয়। এর উদ্দেশ্য, ২০১১ সালে আরব বসন্তের ফলে অর্থনৈতিক যে ক্ষতি হয়েছে, তা পুষিয়ে নেয়া। কিন্তু দেশটিতে দারিদ্র্যের হার বৃদ্ধি পেয়েছে।

জুলাইয়ে প্রকাশিত সরকারি পরিসংখ্যান বলছে, মিসরে বসবাসকারীদের প্রতি তিনজনের মধ্যে একজন বসবাস করেন দারিদ্র্যে। মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বলছে, ২০১৮ সালে দ্বিতীয় দফায় প্রেসিডেন্ট সিসি ক্ষমতায় আসার পর তার নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনী ভীতিপ্রদর্শন, সহিংসতা, রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ ও নেতাকর্মীদের খেয়ালখুশিমতো গ্রেফতার চালিয়ে যাচ্ছে। এর আগে মিসরে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা লঙ্ঘনের জন্য গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন জাতিসঙ্ঘের বিশেষজ্ঞরা।

শেয়ার বিক্রি করে সর্বোচ্চ পুঁজি সংগ্রহের রেকর্ড সৌদি আরামকোর

রিয়াদের স্টক এক্সচেঞ্জে প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) বিক্রি করে দুই হাজার ৫৬০ কোটি ডলার মূলধন সংগ্রহ করেছে সৌদি আরবের রাষ্ট্রায়ত্ত তেল কোম্পানি আরামকো।

শেয়ার বিক্রি করে পুঁজি সংগ্রহের ইতিহাসে এটা সর্বোচ্চ। এর আগে ২০১৪ সালে নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জে আইপিও বিক্রি করে আড়াই হাজার কোটি ডলার তুলেছিল চীনা ই-কমার্স কোম্পানি আলিবাবা। তবে আরামকো পশ্চিমা বিনিয়োগকারীদের আগ্রহের ঘাটতি দেখে আইপিও বিক্রির জন্য দেশীয় ও আঞ্চলিক বিনিয়োগকারীদের উপর নির্ভর করেছিল।

আইপিও বিক্রির মধ্য দিয়ে আরামকোর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ১ দশমিক ৭ ট্রিলিয়ন (এক লাখ ৭০ হাজার কোটি) ডলারে। এটা ২ ট্রিলিয়ন ডলারের লক্ষ্যমাত্রা চেয়ে কম হলেও বিশ্বের সবচেয়ে মূল্যবান কোম্পানিতে পরিণত হয়েছে আরামকো।

আরব নিউজ থেকে আবদুল্লাহ তামিমের অনুবাদ

-এটি

ad

পাঠকের মতামত

Comments are closed.