181438

‘ইজতেমার সংবাদ প্রচারে অগ্রণী ভূমিকা রাখায় আওয়ার ইসলামকে সাধুবাদ’

শেখ হাবিবুর রহমান ।।

একটা সময় পর্যন্ত ইসলামিক মিডিয়ার দৈন্যদশা ছিলো প্রবাদপ্রতীম৷ মিডিয়া বলতে প্রিন্ট মিডিয়া ছিলো আমাদের সম্পূর্ণ প্রতিকুলে৷ যত গুরুত্বপূর্ণ সংবাদই হোক ইসলামঘেষা হলে যথোচিত কভারেজ পাওয়া যেতো না৷ তবে সময় এখন বদলেছে৷ ইসলামি মিডিয়ার কাঙ্ক্ষিত মানোন্নয়ন না হলেও তুলনামূলক উন্নতি যে হয়েছে, এ বিষয়ে কারও দ্বিমত থাকার কথা নয়।সাম্প্রতিক সময়ে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ইসলামি নিউজ পোর্টাল ইসলামি অঙ্গনকে তুলে ধরতে বেশ প্রশংসনীয় কাজ করে যাচ্ছে।

বাংলাদেশে ইসলামি অনলাইন পোর্টালে নিজেদেরকে নানামাত্রিক বৈচিত্রে আলাদা করে রেখেছে আওয়ার ইসলাম টোয়েন্টিফোর ডটকম। ২০১৬ সালে অনেক চ্যালেঞ্জের বিপরীত প্রতিষ্ঠিত হওয়া এ পত্রিকাটি অবর্ণনীয় সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও বাংলাদেশে ইসলামিক নিউজ পোর্টাল হিসেবে যে এটি তুলনামূলক বেশি পাঠকপ্রিয় অন্তত এ বিষয়ে কারও দ্বিমত থাকার কথা নয়। ব্যক্তিগতভাবে সেই প্রতিষ্ঠাকালীন থেকেই পত্রিকার পাঠক আমি।

প্রতি বছরের মতো এবারও বিশ্ব ইজতেমায় অত্যন্ত সফলতার সাথে আওয়ার ইসলাম ‘এ টু জেড’ কভারেজের দায়িত্ব আঞ্জাম দিয়েছে। ইজতেমার প্রতি মুহূর্তের আপডেট এসেছে। বয়ান, সময়সূচী, বিষয়সূচী, কখন-কোথায়-কী হচ্ছে’ এক কথায় সকল খবর পাওয়া গেছে আওয়ার ইসলামে। এই রকম মনে-প্রাণে খুব কম পোর্টালই ইজতেমাকে কভারেজ করেছে। ইজতেমা কেন্দ্রিক আওয়ার ইসলামের আন্তরিক এই উদ্যোগ নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবীদার।

ইজতেমার বর্ণিল আয়ােজন; আপনারা বহুমাত্রিক শিরোনামে প্রকাশ করেছেন, কিন্তু আপনাদের সাইটে বা ফেইসবুক পেইজের কোত্থাও কোন লাইভ নজরে পড়েনি। আমার মনে হয় অনিবার্য  কারণবশত যারা ইজতেমায় উপস্থিত হতে পারেননি অন্তত কিছু অডিও লাইভের ব্যবস্থা থাকলেও তারা অনেক উপকৃত হতে পারতেন। আমি খুব করে আশা করবো, আগামী ইজতেমায় আপনারা এই বিষয়টি বিশেষভাবে নজরে রাখবেন।

আশা করি, ইসলামি সাংবাদিকতায় সময়োপযোগী সংযোজনের মধ্য দিয়ে আওয়ার ইসলাম তার ধারাবাহিক সাফল্য ধরে রাখতে সচেষ্ট হবে। আপনাদের জন্য শুভকামনা। আল্লাহ আপনাদের উত্তম প্রতিদান দান করুন।  -মেইলবক্স থেকে

লেখক : শিক্ষার্থী, দাওরায়ে হাদিস, কাসিমুল উলুম দরগাহে হজরত শাহ জালাল রহ.।

আরএম/

ad

পাঠকের মতামত

Comments are closed.