181631

মুমিন কখনো হকের রাস্তা ছেড়ে গুমরাহীর পথে চলতে পারেনা

আওয়ার ইসলাম: ফুলতলী পীরের উত্তরসূরী, সিলেটের ঐতিহ্যবাহী সুবহানীঘাট ডি ওয়াই কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা কমর উদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, মুমিন কখন হকের রাস্তা ছেড়ে গুমরাহীর পথে চলতে পারেনা। তারা আল্লাহর দেওয়া সঠিক পথেই পরিচালিত হয়।

রাসুল সা. একবার মাটিতে পা রেখা টেনে সাহাবাদেরকে বলেন এটা সিরাতাল মুস্তাকিমের রাস্তা। এ রাস্তা আমার থেকে শুরু এবং আমাতেই শেষ। রাসুল সা. আরোও বলেন সিরাতুুল মুস্তাকিমের রাস্তা আমার থেকে শুরু এবং এ রাস্তা হাউজে কাওছার পর্যন্ত। যারা সিরাতুল মুস্তাকিমের পথে চলবে তারাই আমার উম্মত।

মাওলানা কমর উদ্দিন চৌধুরী মুসল্লিদের উদ্যেশ্যে বলেন, বিশ্বনবী সা. বলেছেন কিয়ামতের দিন আমার উম্মতের মধ্যে ৭৩ কাতার হবে। তাদের মধ্যথেকে ৭২ কাতার হবে জাহান্নামি। আহলে হাদীস নামধারী একদল লোক বের হয়েছে তারা ইসলামের আসল পথ ছেড়ে গুমরাহীর পথে চলছে।

মুসলমানদেরকে বিভ্রান্ত করছে। মুমিন মুসলমানদের সাড়ে ১৪ শ বছরের ইবাদত বন্ধেগীকে তারা অস্বীকার করছে। ভূল ব্যাখ্যা দিয়ে ইসলামের মূল ধারাকে বিলীন করে দিচ্ছে। এরা সেই ৭২ কাতারের এক কাতার হবে।

তিনি আরোও বলেন ইসলামের ইতিহাস বড় করুন ইতিহাস। এই ইতিহাসকে জানা আমাদের দায়িত্ব। আমরা ইসলামের সঠিক পথে পরিচালিত যেন হই, সেই চেষ্টা করতে হবে।

১১ জানুয়ারি রাতে সিলেট সদর উপজেলার মোগলগাঁও ইউনিয়নের কাজিরগাঁও হাজী মরতুজা আলীর প্রতিষ্ঠিত জালালীয়া হাফিজিয়া দাখিল মাদরাসার বার্ষিক ওয়াজ মাহফিলে প্রধান অতিথির বয়ান পেশ কালে উপরোক্ত কথা গুলো বলেন।

সিলেট জেলা পরিষদের ১নং ওয়ার্ড সদস্য মোহাম্মদ শাহানুর এর সভাপতিত্বে ওয়াজ মাহফিলে প্রধান বক্তা হিসেবে বয়ান পেশ করেন দক্ষিণ সুরমার রাখাল্গঞ্জ আলীয়া মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা শিহাব উদ্দিন আলীপুরী।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বয়ান পেশ করেন জকিগঞ্জের ইছামতি দারুল উলুম টাইটেল মাদরাসার আরবী প্রভাষক মাওলানা ওয়ারিছ উদ্দিন তাপাদার, সুনামগঞ্জের মাওলানা কবি তাজ উদ্দিন আহমদ তাজুদ, মাওলানা মুহিউদ্দিন জামাল কালারুকি, কাজিরগাঁও জালালীয়া হাফিজিয়া দাখিল মাদরাসার সুপার মাওলানা মোঃ হাফিজ উদ্দিন, শিক্ষক মাওলানা মোঃ মতিউর রহমান, উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট মুরব্বী হাজী মইন মিয়া, মো. সলিম উল্লাহ, আনোয়ার মিয়া প্রমূখ।

-এটি

ad

পাঠকের মতামত

Comments are closed.