184443

জামায়াত নেতা মাওলানা আবদুস সুবহানের ইন্তেকাল

আওয়ার ইসলাম: বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সাবেক নায়েবে আমির মাওলানা আবদুস সুবহান আর নেই। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

আজ শুক্রবার দুপুর ১টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর।

মাওলানা আব্দুস সুবহান পাবনা-৫ আসনের ৫ বারের নির্বাচিত এমপি ছিলেন। একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে তাকে প্রাণদণ্ড দেয়া হয়।

আব্দুস সুবহানের আত্মীয় গোলাম হাদী সাঈদী জানান, আব্দুস সুবহান কাশিমপুর কারাগারে ছিলেন। দীর্ঘদিন কারাগারে থেকে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন তার মৃত্যু হয়।

ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই বাচ্চু মিয়া জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রয়েছে।

জামায়াতের কর্মপরিষদের সদস্য এহসান মাহবুব যোবায়ের জানান, হাসপাতাল ও কারাগারের আনুষ্ঠানিকতা শেষে জামায়াত নেতা আব্দুস সুবহানের মরদেহ পাবনা নিয়ে যাওয়া হবে এবং সেখানেই তার দাফন সম্পন্ন হবে।

২০১৫ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি জামায়াতের এই নেতাকে যুদ্ধাপরাধের দায়ে প্রাণদণ্ড দেন মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারে গঠিত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। আব্দুস সুবহান হলেন জামায়াতের নবম শীর্ষ নেতা, যিনি একাত্তরের যুদ্ধাপরাধের দায়ে দোষী সাব্যস্ত হলেন।

প্রসিকিউশনের আনা ৯ টি অভিযোগের মধ্যে ছয়টি সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় মৃত্যু না হওয়া পর্যন্ত তাকে ফাঁসির রজ্জুতে ঝুলিয়ে দণ্ড কার্যকর করার আদেশ দেন ট্রাইব্যুনাল-২ এর চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান।

-এএ

ad

পাঠকের মতামত

Comments are closed.