186313

ফুলবাড়িয়ার শীর্ষ আলেমের বাড়িতে হামলা, গ্রেফতার ১

আল-আমিন (বাপ্পি)
মযমনসিংহ প্রতিনিধি>

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলার শীর্ষ আলেম, ইত্তেফাকুল উলামা বৃহত্তর মোমেনশাহীর ফুলবাড়িয়া থানা শাখার সাবেক সভাপতি মাওলানা আবু হানিফা নুমানের বাসায় সন্ত্রাসী কায়দায় হামলা, ভাংচুর, লুটপাট করেছে দুর্বৃত্তরা।

গত ৬ মার্চ (শুক্রবার) জুমার পর ফুলবাড়িয়া উপজেলার ভালুকজানে অবস্থিত মাওলানা আবু হানিফা নুমানের বাড়িতে হামলা করা হয়।

জানা যায়, জমি সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে হামলার শিকার হন মাওলানা আবু হানিফা নুমান। আব্দুল লতিফ, আব্দুল মান্নান ও হাবিবুর রহমান নামে তিন ভাইয়ের নেতৃত্বে এই হামলাটি করা হয়।

মাওলানা আবু হানিফা নুমান আওয়ার ইসলামকে বলেন, আমি জুমার নামাজের পর খাবার খেতে বসেছি ঠিক ওই মুহূর্তে আমার বাসার পিছনে এই তিন ভাই হাতুড়ি দিয়ে একটি দেয়ালের উপর আক্রমণ করে এবং দেয়ালটা ভেঙ্গে ফেলে। সেই সাথে চালের উপরে থাকা কয়েকটি টিন খুলে ফেলে।

তিনি আরও বলেন, আমি যখন তাদেরকে ফেরাতে যাই তখন তারা দা নিয়ে আমাকে আক্রমণ করতে আসে। পরে আমি ফুলবাড়িয়া থানার ওসিকে ফোন দিলে তিনি একজন এসআই এবং কয়জন কনস্টেবলকে পাঠান। পরে পুলিশ দেখে তারা সেখান থেকে পালিয়ে যায় এবং আক্রমণের সময় তারা আমার বাসা থেকে ৫ লক্ষ টাকা এবং পাঁচ থেকে ছয় ভরি স্বর্ণালংকার নিয়ে যায়।

মাওলানা আবু হানিফা নুমান বলেন, আমি এই তিন ভাইয়ের বাবার কাছ থেকে এই জমি ক্রয় করেছি আরো দশ বছর আগে। কিন্তু তারা এখন দাবি করছে, তারা এখান থেকে আরো জায়গা পাবে আমার কাছে। আমি বলেছি তোমরা যদি আমার কাছ থেকে আরো জায়গা পেয়ে থাকো তাহলে তোমরা আইনিভাবে এটা সমাধান করার চেষ্টা করো। আমার বাড়ির উপর হামলা করে নয়।

এ বিষয়ে ফুলবাড়িয়া থানার ওসি মোহাম্মদ ফিরোজ তালুকদার আওয়ার ইসলামকে বলেন, মাওলানা আবু হানিফ নোমানের বাসায় যে হামলাটি হয়েছে সেটি মূলত জমি সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে। তিনি আমাকে ফোন দিলে আমি ঘটনাস্থলে পুলিশকে পাঠাই। আমরা তার বাসায় হামলাকারী তিন ভাইয়ের মধ্যে থেকে এক ভাই আব্দুল মান্নানকে গ্রেফতার করি, বাকি দুইজন পলাতক আছে। শীঘ্রই তাদেরও গ্রেফতার করব আমরা।

-এএ

ad