186812

করোনা: পর্তুগাল, টরন্টো, মালয়েশিয়ার পার্লিসে পড়া হয়নি জুমার নামাজ

আওয়ার ইসলাম: করোনাভাইরাসের সংক্রমন এড়াতে বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় আদায় করা হয়নি জুমার নামাজ। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কানাডার টরন্টো, পর্তুগাল, মালয়েশিয়ার পার্লিসের সবগুলো মসজিদে আদায় করা হয়নি জুমার নামাবজ।

গতকাল বৃহস্পতিবার কানাডীয়ান কাউন্সিল অব ইমাম এবং মুসলিম মেডিকেল এসোসিয়েশন অব কানাডার এক জরুরি সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

অন্যদিকে, করোনাভাইরাসের প্রভাব ঠেকাতে ইতোমধ্যে পর্তুগালের সরকার এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তর (জেনারেল ফর হেলথ- ডিজিএস) গনসমাবেশ, পার্ক, সিনেমা হল, মার্কেট, খেলার মাঠসহ জনবহুল জায়গায় অযথা ঘোরাফেরা না করার ব্যাপারে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

তারই ধারাবাহিকতায় জুমার নামাজ স্থগিত করেছে লিসবনের পর্তুগাল ইসলামিক সেন্টারসহ বাংলাদেশ ইসলামিক সেন্টার ও পোর্তো-বাংলাদেশ ইসলামিক সেন্টার।

মালয়েশিয়ার পার্লিসে জুমার নামাজ স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। নিজ নিজ ঘরে জুমার পরিবর্তে জোহরের নামাজ আদায় করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ যেন বিস্তার লাভ করতে না পারে সেই লক্ষ্যেই এমন প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

শুক্রবার মালয়েশিয়ার পার্লিস রাজ্যের রাজা তুয়াংকু সৈয়দ সিরাজউদ্দিনের ছেলে জামালুল্লাহিল দেশটির স্থানীয় গণমাধ্যমে এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, সারা বিশ্বে করোনাভাইরাস মহামারি আকার ধারণ করেছে। নতুন করে যেন কেউ এতে আক্রান্ত না হয় সেদিক বিবেচনায় এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির সরকার।

মালয়েশিয়ায় করোনাভাইরাসে এখনও পর্যন্ত ১৫৮ জন আক্রান্ত হয়েছে। তবে এর মধ্যে কোনো বাংলাদেশি নেই। নিবিড় পর্যবেক্ষণ শেষে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সুস্থ ঘোষণা করেছে ২৯ জনকে যারা ইতোমধ্যে ঘরে ফিরেছে। শুক্রবার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

সর্বশেষ তথ্যমতে, বৃহস্পতিবার সেরেম্বান এলাকা থেকে চার জনকে পাওয়া গেছে যাদের শরীরে করোনা থাকার লক্ষণ পাওয়া যায়। আক্রান্তদের মধ্যে দু’জন সম্প্রতি ইরান ও ভিয়েতনাম থেকে এসেছেন, বাকি দু’জন তাদের পরিবারের সদস্য। তাদেরকে তুনকো দেশটির জা’ফর হাসপাতালে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

চীনে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে মাত্র চারজন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছেন, মারা গেছেন একজন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ১৭০ জন। তবে করোনার তাণ্ডব চলছে ইউরোপের দেশগুলোতে। ইতালিতে একদিনে মারা গেছেন আরও ১৮৯ জন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ১৬ জন, আক্রান্ত ১৫ হাজার ১১৩ জন। স্পেনে একদিনে নতুন করে ৮৬৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন, মারা গেছেন ৩১ জন।

-এটি

ad