187951

পাকিস্তানের সব ঘরানার আলেমদের নিয়ে করোনা বিষয়ে মুফতি তাকি উসমানীর বৈঠক

আওয়ার ইসলাম: করোনা ভাইরাস রোধে পঞ্চাশের বেশি বয়সী, করোনার লক্ষণ (ফ্লু, সর্দি, কাশি, জ্বর) প্রকাশ পেয়েছে এমন ব্যক্তিদের এসময় মসজিদে না আসার আহ্বান জানান ইসলামি স্কলাররা।

করোনার মহামারি থেকে বাঁচতে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের পাশাপাশি আল্লাহ তায়ালার কাছে ইস্তেগফার করা। যেন আল্লাহ তায়ালা যেন এই মহামারি থেকে আমাদের রক্ষা করেন। সচেতনতা বাড়াতে মিডিয়ার পূর্ণ চেষ্টা করা উচিত।

গভর্নর হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে মুফতি তাকি উসমানী এই যৌথ বিবৃতিটি ঘোষণা করেন।

এসময় মুফতি তাকি উসমানী, মুফতি মনিবুর রহমান, মাওলানা শাহানশাহ হুসাইন নকভি বলেছেন, করোনা মহামারির প্রতি লক্ষ রেখে এ প্রস্তার অনুমোদন করা হয়েছে। সকল মুসলমানের এগুলো মানা উচিত।

এসময় মুফতি মনিবুর রহমান বলেন, মহামারি মূলত আমাদের সংশোধনের আল্লাহ তায়ালার সতর্কবানী। এসময় জাতির ইস্তেগফার এবং আল্লাহর দিকে রুজু হওয়া উচিত। মিডিয়ার অশ্লিল, আপত্তিজনক অনুষ্ঠান বন্ধ করুন। মসজিদ খুলে দেয়া হবে।

পাঁচ ওয়াক্ত আজান, ইকামতসহ জামায়াতের সাথে নামাজ অব্যাহত থাকবে। সবাই বাড়ি থেকে অজু এবং নফল নামাজ পড়ে আসবে। সবসময় ভালো কাজ করা উচিত,  প্রতিটি পদক্ষেপে ভাল হওয়া উচিত। বিজ্ঞ আলেমদের কাছে যে কোনো বিষয়ে পরামর্শ নিবেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- মুফতি মনিবুর রহমান, মাওলানা শাহানশাহ হুসাইন নকভি, মুফতি আব্দুল রহিম,  মাওলানা আব্দুল করিম,  মাওলানা মুহাম্মদ সালাফি, মুফতি ইউসুফ কাশ্মীরি, মাওলানা আবদুল ওয়াহেদ এবং মাওলানা আমিন এবং সিন্ধু হাসপাতালের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ডা. আব্দুল বারি।

ডেইলি জং থেকে আবদুল্লাহ আফফানের অনুবাদ

-এটি

ad