রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪ ।। ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ ।। ৮ মহর্‌রম ১৪৪৬

শিরোনাম :
‘দেশপ্রেমিক জনতা জেগে উঠলে তাঁবেদার সরকার টিকতে পারবে না’ অন্যায় যারা করবে তাদের আমরা ধরবোই: প্রধানমন্ত্রী গাজায় গণহত্যার জন্য ইসরায়েল ও যুক্তরাষ্ট্র দায়ী: মাহমুদ আব্বাস কুড়িগ্রামে বন্যার্ত ৬০০ পরিবারকে ত্রাণ সহায়তা দিলো হাফেজ্জী চ্যারিটেবল প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন আজ ডান কানে গুলিবিদ্ধ ট্রাম্প, মারা গেছেন বন্দুকধারী ঘুম ভাঙ্গার পর যে আমল করলে দোয়া কবুল হয় বসনিয়ায় সার্বিয়ান ধ্বংসপ্রাপ্ত সাড়ে চারশো বছর আগের মসজিদ পুনঃরুদ্ধার পুনঃনিরীক্ষণ আবেদনে কৃতী শিক্ষার্থীদের ফি ফেরত দিচ্ছে বেফাক সমাজের বিভিন্ন শ্রেণীকে শিক্ষিত করতে মাদরাসাগুলোর ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ : মাহমুদ মাদানি

চলছে তিনদিন ব্যাপী উজানীর বার্ষিক ইসলাহী জোড়


নিউজ ডেস্ক

নিউজ ডেস্ক
শেয়ার

প্রখ্যাত আলেমেদ্বীন, কুতুবুল আলম হযরত মাওলানা ক্বারী ইবরাহীম রহ. প্রতিষ্ঠিত, চাঁদপুর কচুয়া থানার অন্তর্গত ঐতিহ্যবাহী জামিয়া ইসলামিয়া ইবরাহীমিয়া উজানী মাদরাসা ময়দানে‌ চলছে বার্ষিক ইসলাহী জোড়।

মজলিসে তালিমুল উম্মাহ বাংলাদেশ কর্তৃক আয়োজিত বার্ষিক এ ইসলাহী জোড় কাল ( ৭ মার্চ ২০২৪)  বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হয়েছে এই ইসলাহী জোড়। চলবে  তিনদিন পর‌্যন্ত। ৯ মার্চ ২০২৪, শনিবার দুপুরের দিকে আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হবে।

 জোড় উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে হাজার হাজার মুসুল্লি‌ ইতোমধ্যে উজানী ময়দানে সমবেত হয়েছেন।

উজানী গ্রামের অধিবাসী মুফতী তানযীল হাসান- যিনি উজানী ইসলাহী জোড়ে অবস্থান করছেন। তিনি আওয়ার ইসলামকে বলেন, গতকাল বাদ জোহর উজানীর পীর সাহেব হযরত মাওলানা ফজলে এলাহীর উদ্বোধনী বয়ানের মাধ্যমে শুরু হয়েছে তিনদিন ব্যাপী উজানীর বার্ষিক ইসলাহী জোড়।

পীর সাহেব হুজুরের বয়ানের পর খুবই গুরুত্বপূর্ণ ইসলাহী আলোচনা পেশ করেন ফরিদাবাদ মাদরাসার প্রধান মুফতী ও ফুলছোঁয়ার পীর হযরত মাওলানা মুফতী আবু সাঈদ।

বাদ মাগরিব তাছাউ্উফ সম্পর্কে বিশেষ বয়ান পেশ করেন হযরত মাওলানা আশেক এলাহী, পীর সাহেব উজানী।

তিন দিনব্যাপী এ জোড়ে পর্যায়ক্রমে দেশের সর্বজন শ্রদ্ধেয় শীর্ষ ওলামায়ে কেরাম ও উজানীর পীর সাহেবগণ আত্মশুদ্ধিমূলক গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা পেশ করবেন।

তিনি আরো জানান, উজানী ইসলাহী জোড়ের ব্যতিক্রমি কিছু বৈশিষ্ট্য রয়েছে।

★ দেশের শীর্ষ ওলামায়ে কেরাম ও মুরুব্বিদের মাধ্যমে বিষয় ভিত্তিক আলোচনা প্রদান ও আমলি মাশক।

★ নামাজের সময় ও পীর সাহেব হুজুরদের আলোচনা চলাকালীন দোকানপাট, রাস্তাঘাট ও হাঁটাচলা সম্পূর্ণরূপে বন্ধ রাখা হয়।

★ আগত মুসুল্লিয়ানে কেরাম জামাতবন্দি হয়ে তিনদিন ব্যাপী  ইসলাহী জোড়ের পূর্ণ সময়ে ময়দানে অবস্থান করে আত্মশুদ্ধির বিশেষ প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে থাকেন।

হাআমা/


সম্পর্কিত খবর


সর্বশেষ সংবাদ