রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪ ।। ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ ।। ৮ মহর্‌রম ১৪৪৬


ট্রাকে ঢাকায় ঢুকছে গরু, বের হচ্ছে মানুষ

নিউজ ডেস্ক
নিউজ ডেস্ক
শেয়ার

বিশেষ প্রতিনিধি : রিবারের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে ঢাকা ছাড়ছেন মানুষ। রাজধানীর গাবতলী, মহাখালী বাস টার্মিনাল, কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ও সদর ঘাটমুখী জনস্রোত তৈরি হয়েছে। তবে দেখা গেছে বাসের সংকট। রয়েছে বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগও। এ অবস্থায় গরু নিয়ে ঢাকায় ঢোকা ট্রাকগুলোতেই বাড়ি ফিরছে মানুষ।

শুক্রবার দুপুরে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের হেমায়েতপুর, উলাইল, সাভার বাসস্ট্যান্ড, নবীনগর বাসস্ট্যান্ড ও নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের বাইপাইল বাসস্ট্যান্ড, ডিইপিজেড, শ্রীপুর, জিরানীবাজার স্ট্যান্ড ঘুরে দেখা যায়, গরুবোঝাই ট্রাক প্রবেশ করছে ঢাকায়। আর এসব ট্রাক ফিরে যাওয়ার সময় মানুষ ভর্তি করে ঢাকা ছাড়ছে।

গরুর ট্রাকে করে পরিবারের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করতে রাজশাহী যাচ্ছেন পোশাক শ্রমিক মারুফ মিয়া। তিনি বলেন, আমরা সকালেই বের হয়েছি গ্রামে ফেরার জন্য। বাসের তো টিকিটই পাওয়া যায় না। টিকিট ছাড়া যেসব বাস ছাড়ে সেসব বাসের ভাড়া ডাবল। এজন্য গ্রামে যেতে ট্রাকে করে ঝুঁকি হলেও বাধ্য হচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, আমি এই নিয়ে দুই বার ট্রাকে যাত্রা করছি। এর আগে ট্রাকে কম ভাড়ায় বাড়ি পৌঁছাতে পেরেছি। ঝুঁকি থাকলেও কিছু করার নেই। কারণ আমাদের তো আয় সীমিত।

ট্রাকের আরেক যাত্রী ফয়সাল হোসেন বলেন, ট্রাকের ওপরে ত্রিপল দেওয়া থাকে। আমাদের যেতে একটু কষ্ট হলেও বাসভাড়ার প্রায় অর্ধেক টাকা বেঁচে যায়। এ টাকা দিয়ে বাবা কিংবা মাকে খুশি করতে পারি। ঢাকায় তো কষ্ট করতেই এসেছি। এতটুকু কষ্ট আমাদের জন্য কিছু নয়।

ট্রাকচালক আলমগীর রহমান বলেন, আমি সবসময় পাথর পরিবহন করি। এবার ঈদে গরু নিয়ে গাবতলী গরুর হাটে এসেছিলাম। ট্রাকে যাত্রী নেয়ার কোনো ইচ্ছে ছিল না। ফেরার পথে এক যাত্রী থামিয়ে তার অসহায়ত্বের কথা জানান। ফলে ফ্রিতে তাকে ট্রাকে উঠাই। পরের স্ট্যান্ডে আসামাত্র যাত্রীরা হুড়মুড় করে ট্রাকে ওঠেন। নামতে বললে তারা রাগারাগি করে বলেন, তারা তো ফ্রিতে যাবেন না, ভাড়া দেবেন। পরে ভাড়া মিটিয়ে রওনা করেছি। পুলিশ রাস্তায় ঝামেলা করলে যাত্রীদের নামিয়ে দেব।

এ নিয়ে সাভার মডেল থানার পরিদর্শক (ওসি) আইয়ুব আলী বলেন, আমরা ট্রাক-পিকআপে যাত্রী উঠতে দিচ্ছি না। এ নিয়ে আমাদের স্পষ্ট নির্দেশনা রয়েছে। এমন ট্রাক কিংবা পিকআপ দেখলেই যাত্রীদের নামিয়ে দিচ্ছি। অনেককে মামলাও দেওয়া হচ্ছে।

হাআমা/ 


সম্পর্কিত খবর


সর্বশেষ সংবাদ