বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪ ।। ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ ।। ২২ জিলকদ ১৪৪৫


সুদের টাকায় মসজিদ উন্নয়ন করা যাবে?


নিউজ ডেস্ক

নিউজ ডেস্ক
শেয়ার
ছবি: সংগৃহীত

আসসালামুআলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ, ব্যাংকে ডিপিএস এ টাকা জমা করলে যে সুদ দেয়া হয় আমি তা নিয়ে নিজে না খেয়ে গরীবদেরকে অথবা মসজিদের উন্নয়নে কাজে দিতে পারব?

উত্তর : এক. যেহেতু সুদ হারাম তাই একজন মুমিনের কর্তব্য হল, যতটুকু সম্ভব দূরে থাকার চেষ্টা করবে। কিন্তু এর পরও যদি অ্যাকাউন্টে কোনো সুদ চলে আসে, তবে সে ক্ষেত্রে অবশ্যই সেই টাকা সুদদাতাকে ফেরত দিতে হবে। (ফাতাওয়ায়ে ফকীহুল মিল্লাত : ১০/১২৪)

কিন্তু ব্যাংকের ক্ষেত্রে যেহেতু নির্দিষ্ট সুদদাতা বের করা অসম্ভব, তাই সওয়াবের নিয়ত না করে কোনো জাকাত খাওয়ার উপযুক্ত মিসকিনকে তা দান করে দিতে হবে। (আহসানুল ফাতাওয়া : ৭/১৬, ফাতাওয়ায়ে ফকীহুল মিল্লাত : ১০/১২৬)

দুই. সুদের টাকা মসজিদের কাজে লাগানো জায়েয হবে না। কেননা, মসজিদ আল্লাহ তাআলার ঘর। যা মুসলমানদের হালাল ও পবিত্র দান অনুদান দ্বারা নির্মিত ও পরিচালিত হবে। সুদের মত ঘৃণিত অর্থ মসজিদের মত পবিত্র জায়গাতে ব্যয়ের চিন্তা করাও ঠিক নয়। দারুল উলুম দেওবন্দ-এর ফতোয়ায় বলা হয়েছে– সুদের টাকা নাপাক সম্পদ। আর নাপাক সম্পদ ইবাদতখানা তথা মসজিদে ব্যয় করা শরিয়তের দৃষ্টিতে জায়েয নয়। কেননা, রাসুলুল্লাহ ﷺ বলেছেন, নিশ্চয় আল্লাহ পবিত্র। তিনি একমাত্র পবিত্রটাই গ্রহণ করেন…(মিশকাত ২৪১)। সূত্র : মুসলিম বাংলা।

এমআই/


সম্পর্কিত খবর


সর্বশেষ সংবাদ