রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪ ।। ২ আষাঢ় ১৪৩১ ।। ১০ জিলহজ ১৪৪৫


আধুনিক যুগে পায়ে হেটে হজে যাওয়ার বিধান

নিউজ ডেস্ক
নিউজ ডেস্ক
শেয়ার
ফাইল ছবি

প্রশ্ন: আধুনিক যুগে যেখানে যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নতি লাভ করেছে। বিমানে কয়েক ঘন্টায় সৌদি আরবে যাওয়া সম্ভব। এমন সময়ে আর্থিকভাবে স্বচ্ছল ব্যক্তির জন্য আট নয় হাজার হাজার কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে পায়ে হেটে হজ করার হুকুম কী?

উত্তর: লোক দেখানো উদ্দেশ্য না হলে এভাবে হজ করা জায়েজ আছে।

সহজ মাধ্যমে হজে যেতে সক্ষম হবার পরও এভাবে নিজেকে কষ্ট দিয়ে পায়ে হেটে হজে যাওয়া উচিত নয়। বরং নিজের সাধ্যানুপাতে সহজ মাধ্যমে হজ্জে গমণ করা উচিত।

রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এভাবে হজ্জ করেননি। করতে উৎসাহও দেননি। তাই এটাকে সুন্নাহ মনে করার সুযোগ নেই।

عَنِ ‌ابْنِ عَبَّاسٍ رَضِيَ اللهُ عَنْهُمَا، «أَنَّ النَّبِيَّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ لَمَّا بَلَغَهُ أَنَّ أُخْتَ عُقْبَةَ بْنِ عَامِرٍ نَذَرَتْ أَنْ تَحُجَّ مَاشِيَةً، قَالَ: ‌إِنَّ ‌اللهَ ‌لَغَنِيٌّ عَنْ نَذْرِهَا، مُرْهَا فَلْتَرْكَبْ

ইবনু আব্বাস রা. সূত্রে বর্ণিত। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম যখন জানতে পারলেন, উকবাহ ইবনু ‘আমির রা.-এর বোন পদব্রজে হজ (হজ্জ) করার মানত করেছেন তখন তিনি বললেন, নিশ্চয়ই আল্লাহ তার এরূপ মানতের মুখাপেক্ষী নন। তাকে যানবাহনে চড়ে হজে (হজ্জে) আসার নির্দেশ দাও। [সুনানে আবূ দাউদ, হাদীস নং-৩২৯৭, জামে তিরমিজী, হাদীস নং-১৫৩৬]

عَنْ ‌عَائِشَةَ : «أَنَّ النَّبِيَّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ دَخَلَ عَلَيْهَا وَعِنْدَهَا امْرَأَةٌ، قَالَ: مَنْ هَذِهِ؟ قَالَتْ: فُلَانَةُ، تَذْكُرُ مِنْ صَلَاتِهَا. قَالَ: مَهْ، عَلَيْكُمْ بِمَا تُطِيقُونَ، ‌فَوَاللهِ ‌لَا ‌يَمَلُّ ‌اللهُ ‌حَتَّى ‌تَمَلُّوا، وَكَانَ أَحَبَّ الدِّينِ إِلَيْهِ مَا دَامَ عَلَيْهِ صَاحِبُهُ»

‘আয়শা রা. হতে বর্ণিত যে, নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম একবার তাঁর নিকট আসেন, তাঁর নিকট তখন এক মহিলা ছিলেন। আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম জিজ্ঞেস করলেনঃ ‘ইনি কে?’ ‘আয়শা রা. উত্তর দিলেন, অমুক মহিলা, এ বলে তিনি তাঁর নামাজের কথা উল্লেখ করলেন।

আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, ‘আরে থামো! তোমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী আমল করা তোমাদের কর্তব্য। আল্লাহর শপথ! আল্লাহ (পুরস্কার প্রদানে) অবসন্ন হন না, যতক্ষণ না তোমরা অবসন্ন হয়ে পড়ো। আল্লাহর নিকট অধিক পছন্দনীয় আমল সেটাই, যা আমলকারী নিয়মিত করে থাকে। [সহীহ বুখারী, হাদীস নং-৪৩, সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-৭৮৫, সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-৪২৩৮]

উত্তর প্রদান: মুফতি লুৎফুর রহমান ফরায়েজী
পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

এনএ/


সম্পর্কিত খবর


সর্বশেষ সংবাদ