রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪ ।। ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ ।। ৮ মহর্‌রম ১৪৪৬

শিরোনাম :
‘দেশপ্রেমিক জনতা জেগে উঠলে তাঁবেদার সরকার টিকতে পারবে না’ অন্যায় যারা করবে তাদের আমরা ধরবোই: প্রধানমন্ত্রী গাজায় গণহত্যার জন্য ইসরায়েল ও যুক্তরাষ্ট্র দায়ী: মাহমুদ আব্বাস কুড়িগ্রামে বন্যার্ত ৬০০ পরিবারকে ত্রাণ সহায়তা দিলো হাফেজ্জী চ্যারিটেবল প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন আজ ডান কানে গুলিবিদ্ধ ট্রাম্প, মারা গেছেন বন্দুকধারী ঘুম ভাঙ্গার পর যে আমল করলে দোয়া কবুল হয় বসনিয়ায় সার্বিয়ান ধ্বংসপ্রাপ্ত সাড়ে চারশো বছর আগের মসজিদ পুনঃরুদ্ধার পুনঃনিরীক্ষণ আবেদনে কৃতী শিক্ষার্থীদের ফি ফেরত দিচ্ছে বেফাক সমাজের বিভিন্ন শ্রেণীকে শিক্ষিত করতে মাদরাসাগুলোর ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ : মাহমুদ মাদানি

কুরবানির গোস্ত বিয়ের অনুষ্ঠানে খাওয়ানো যাবে কি?

নিউজ ডেস্ক
নিউজ ডেস্ক
শেয়ার

হযরত ইব্রাহমি আ. এর মাধ্যমে যে কোরবানীর পথা চালু তাই পরবর্তীতে ইসলাম ধর্মের শেষ নবী হযরত মহাম্মদ সা. এর উন্মতদের মধ্যে চালু হয়। যা পালন করেছেন শেষ নবী মোহাম্মদ সা.।

এই কোরবানী নিয়ে সমাজে অনেক পথা চালু হয়ে গেছে যার সঙ্গে ইসলামের কোনো সম্পর্ক নেই। বিশ্বের অন্যদেশগুলোর মত বাংলাদেশ এর ব্যতিক্রম নয়। বাংলাদেশেও ইসলামের নামে অনেক কিছু চাল রয়েছে ইসলাম সমর্থন করে না।

জানা যায়, কুরবানির ঈদকে কেন্দ্র করে অনেকেই বিয়ে বা অন্যান্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। এসব অনুষ্ঠানে আপ্যায়নের নিয়তেও কেউ কেউ কুরবানি দিয়ে থাকেন। তারপর সেই পশুর মাংস দিয়ে অতিথি আপ্যায়ন করেন। কিন্তু কুরবানির পশুর মাংস দিয়ে বিয়ে বা কোনো অনুষ্ঠানের আপ্যায়ন করা যাবে কিনা, কিংবা এই নিয়তে কুরবানি দেয়া যাবে কিনা-তা নিয়ে অনেকের জানার আগ্রহ রয়েছে।

পবিত্র ইসলাম ধর্মে কুরবানি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি ইবাদত। মহান আল্লাহ তাআলার সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে কুরবানি দেয়া হয়। কুরআন ও ইসলামিক স্কলারদের মতে, কুরবানির পর পশুর মাংস নিজে যেমন খাওয়া যায়। আবার অন্যকেও খাওয়ানো যাবে। সেই সময় যদি বিয়ের অনুষ্ঠান হয় তাহলে সেখানেও ওই মাংস ব্যবহার করা যাবে। অর্থাৎ আপ্যায়ন করতে কোনো নিষেধ নেই। তাই কুরবানির মাংস দিয়ে বিয়ে, কোনো অনুষ্ঠান বা ওয়ালিমা করতে বাধা নেই।

কেএল/


সম্পর্কিত খবর


সর্বশেষ সংবাদ