মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪ ।। ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ ।। ১৭ মহর্‌রম ১৪৪৬


মাতৃভাষা দিবস নিয়ে যা বললেন শায়খ আহমাদুল্লাহ ও মাওলানা আজহারী

নিউজ ডেস্ক
নিউজ ডেস্ক
শেয়ার
ফাইল ছবি

সর্বত্র নিঃসংকোচে বাংলা ভাষার চর্চা করা এবং ভাষার অপব্যবহার থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন ইসলামিক স্কলার শায়খ আহমাদুল্লাহ।

অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ভাষা শহীদের জন্য দোয়া করেছেন আহমাদুল্লাহ। 

বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে নিজের ফেসবুক পেজে এক স্ট্যাটাসে তিনি বলেন, ‘প্রিয় নবী (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বিশুদ্ধ ও মার্জিত ভাষায় কথা বলতেন। শুদ্ধ ও সুন্দর ভাষায় কথা বলা সুন্নাহ। সকল নবী-রাসুলকে মহান আল্লাহ স্বজাতির ভাষায় (মাতৃভাষায়) প্রেরণ করেছেন।’

ভাষা শহীদদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আমাদের মায়ের ভাষায় কথা বলার অধিকার আদায়ের জন্য যারা আত্মত্যাগ করেছেন—সেই আবদুস সালাম, আবদুল জাব্বার, রফিক উদ্দীন আহমাদ, শফিউর রহমান ও আবুল বরকতকে মহান আল্লাহ আমাদের পক্ষ হতে উত্তম বিনিময় দান করুন।

তাঁদের অবদানের প্রতি প্রকৃত শ্রদ্ধা প্রদর্শন হবে তখনই, যদি সর্বত্র আমরা বাংলাভাষার চর্চা করি, বাংলাভাষায় কথা বলতে হীনম্মন্যতায় না ভুগি, বাংলাভাষার বিকৃত উচ্চারণ থেকে বিরত থাকি এবং অপ্রয়োজনীয় অন্য ভাষা ব্যবহার থেকে বেঁচে থাকতে পারি।’

তিনি দেশবাসীর প্রতি শুদ্ধ ভাষায় কথা বলার আহ্বার জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আসুন, আল্লাহর নেয়ামতের যথাযথ ব্যবহার এবং তাঁদের অর্জনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে সবাই সর্বত্র নিঃসংকোচে বাংলাভাষার চর্চা করি এবং ভাষার অপব্যবহার (খারাপ ভাষায় কথা বলা, গালমন্দ, মিথ্যা, প্রতারণা ইত্যাদি) থেকে বিরত থাকি।’

এদিকে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে পবিত্র কুরআনের একটি আয়াত উল্লেখ করে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এক পোস্ট করেছেন  ইসলামি বক্তা মিজানুর রহমান আজহারী।

ফেসবুকে মিজানুর রহমান আজহারী লেখেন, ‘মাতৃভাষার মর্যাদা শুধু দিবস পালনের মাঝেই সীমাবদ্ধ না হোক। আমাদের সকলের ভাষার প্রয়োগ হোক—শুদ্ধ, পরিশীলিত ও শিষ্টাচার সমৃদ্ধ।’

পোস্টে একটি গ্রাফিক্যাল পোস্টার শেয়ার করেন আজহারী। পোস্টারে তিনি পবিত্র কুরআনের সূরা আল-রুমের ২২ নম্বর আয়াতের বাংলা অনুবাদ উদ্ধৃত করেন। আয়াতে বলা হয়েছে, ‘আর তাঁর নির্দেশনাবলির মধ্যে রয়েছে আকাশমণ্ডলী ও পৃথিবী সৃষ্টি এবং তোমাদের ভাষা ও বর্ণের বৈচিত্র্য। এতে জ্ঞানীদের জন্য অবশ্যই বহু নিদর্শন রয়েছে।’ (সূরা আল-রুম : ২২)   

এনএ/


সম্পর্কিত খবর


সর্বশেষ সংবাদ